Tech DeskAdvance Knowledge

INRUPT The New Internet Is Coming Soon

নতুন ইন্টারনেট INRUPT

গতকাল নতুন ইন্টারনেটের আসার খবর দেওয়ার পর অনেকেই অপেক্ষায় ছিলেন। INRUPTআপনারা কি ভাবছেন যে, আমি SpaceX কোম্পানি যেই Starlink নেটওয়ার্ক তৈরির জন্য কাজ করে যাচ্ছে, আমি সেই নেটওয়ার্কের কথা বলেছিলাম? না, আমি সেটার কথা বলি নি। তাহলে, কি আপনারা ভেবেছিলেন যে, আমি Quantam নেটওয়ার্কের কথা বলেছিলাম। না, আমি সেটার কথাও বলি নি। তাহলে, আমি কিসের কথা বলেছিলাম? চলুন, সেই নতুন ইন্টারনেটের পরিচয় দেওয়া যাক।

 

নতুন যেই ইন্টারনেট আসছে সেটা কে তৈরি করছেন, জানেন? INRUPTএই যে, ওয়েবসাইটের লিংকে www লেখা থাকে, যেটি ছাড়া ওয়েবসাইটগুলো অচল; সেই www যিনি তৈরি করেছিলেন, তিনিই নতুন ইন্টারনেট নিয়ে আসছেন। তার নাম টিম বার্নারস-লি। তাঁকে ইন্টারনেটের জনক বলা হয়। কিন্তু, ইন্টারনেটের বর্তমান অবস্থা নিয়ে তিনি অসন্তুষ্ট। তার মতে, Google, Facebook যেভাবে ইন্টারনেট ব্যাবহারকারীদেরকে কিছুটা এককেন্দ্রিক অবস্থানে নিয়ে এসেছে এবং মানুষের তথ্য নিয়ন্ত্রণ করছে, সেটাকে তিনি অপছন্দ করেন। তাই, তিনি একটি নতুন ইন্টারনেট প্লাটফরম Inrupt নিয়ে আসছেন।

 

Inrupt:

এই নতুন ইন্টারনেট ব্যাবহারকারী প্রত্যেকের নিজস্ব এবং আলাদা Solid ID এবং Solid pod থাকবে। এই Solid pod হবে আপনার নিজের হার্ড-ড্রাইভ। অর্থাৎ, ইন্টারনেটে আপনাকে কোনকিছু আপলোড করতে হবে না। আমরা এখন যেভাবে ইন্টারনেটে ছবি, অডিও, ভিডিও আপলোড করি এবং সেগুলো আপলোড হয় কোন একটি ওয়েবসাইটের কম্পিউটারে। কিন্তু, এই নতুন ইন্টারনেট প্লাটফরমে যদি আপনি কিছু আপলোড করতে চান তাহলে, সেগুলো আপনার কম্পিউটারে রেখেই ইন্টারনেটে চালু রাখতে পারবেন; ওয়েবসাইটে আপলোড করার প্রয়োজন পড়বে না। এক কথায়, আপনার কম্পিউটারের হার্ড-ড্রাইভেই আপনার ইন্টারনেট data সংরক্ষিত থাকবে। যদিও, এখন আমরা উল্টো করছি, যেমনঃ Google drive এ আমাদের ব্যক্তিগত তথ্য রাখি কিংবা, ফেসবুকে ছবি আপলোড করি। এই নতুন ইন্টারনেটে প্রত্যেক ব্যক্তি থাকবে স্বাধীন। এমনকি, এই নতুন ইন্টারনেট নির্মাতা (এবং পূর্বের www নির্মাতা) এই ইন্টারনেট নিয়ে আসছেন সম্পুর্ন ফ্রিতে ব্যাবহারের জন্য। অর্থাৎ, এটি ব্যাবহার করতে কাউকে কোন টাকা দিতে হবে না।

 

এই নতুন ইন্টারনেট প্লাটফরমকে অনেক বড় বড় টেকনোলজি কোম্পানি সাদরে গ্রহণ করবে না বলেই ধারনা করা হচ্ছে।

কিন্তু, সাধারণ ইউজারদের নিরাপত্তার বিষয় জড়িত থাকায় অল্প সময়ের মধ্যেই ব্যপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। এখন শুধু এটি আগমনের অপেক্ষা। তখনই দেখা যাবে- আমরা কি এতোদিনকার এই ইন্টারনেট সিস্টেমেই চলতে থাকবো নাকি, নতুন পথে চলবো?

Related Articles

Leave a Reply